Home / ইন্টারনেট / অবশ্যই জানতে হবে: ফেসবুকে যা করবেন, যা করবেন না
InnoCurrent Services - Get Paid to Visits Sites and Complete Surveys

অবশ্যই জানতে হবে: ফেসবুকে যা করবেন, যা করবেন না

fb-be

প্রত্যেক ফেসবুক ব্যবহারকারীকে নিচের ১০টি গুরুত্বপূর্ন বিষয় অবশ্যই জানা প্রয়োজন। অন্যথায় আপনার বোকামীর কারনে সমাজে বিদ্রুপের পাত্র বা বিড়ম্বনার স্বীকার হবেন প্রতিদিন। এমন কি আপনার ফেসবুক একাউন্টও হ্যাক হতে পারে। চলুন শুরু করি-

১। “কেউ আমীন না লিখে যাবেন না” অথবা “সবাই বলুন সুবাহান আল্লাহ” লেখা টিউনগুলি খুবই ইসলাম অবমাননাকর। তাই এতে Like, Comment, Share করা থেকে বিরত থাকুন।

২. “এই মাত্র জানা গেছে চিত্রনায়ক দেব, শাকিরা, নরেন্দ্র মোদী অথবা হৃত্বিক মুসলমান হয়ে গেছেন!! শেয়ার করে সবাইকে জানিয়ে দিন।” অনেক পেইজে এগুলি প্রচার করে মুসলমানদের তিরষ্কার করা হচ্ছে। এগুলোতে Like, Comment, Share করা থেকে বিরত থাকুন।

৩. “১৮+ টিউন” অথবা “১৮ বছরের কম বয়সীরা দেখা থেকে বিরত থাকুন” এই গুলি অশ্লীল টিউন বা প্রতারনামূলক ভাবে আপনাকে অন্য কোন লিংকে নিয়ে যাবে। যেখানে আপনার একাউন্ট হ্যাক হতে পারে তাছাড়া অশ্লীল লিংক থেকেই কম্পিউটার, মোবাইলে বেশি ভাইরাস ছড়ায়। আর অশ্লীল কোন কিছুতে Like, Comment, Share করলে আপনার ফ্রেন্ড লিষ্টে থাকা ছোট-বড় ভাই, বোন, বন্ধুরা দেখতে পাবে এবং আপনার সম্পর্কে তাদের মনে খারাপ ধারনা জন্মাবে। সুতরাং সচেতন হোন।

৪. “দেখুন কুরআন অবমাননা করায় আল্লাহ তাকে কি শাস্তি দিলেন”, “দেখুন মুসলমানদের হত্যা করায় মিয়ানমার, অমুক দেশ বা তমুক দেশের উপর আল্লাহ কিভাবে গজব দিলেন” এই গুলি মিথ্যা, সিনেমার স্ক্রিপ্ট বা অনেক আগের কোন দেশের প্রাকৃতিক বিপর্যয়ের ছবি বা ভিডিও। মিথ্যা প্রচারে Like, Comment, Share করবেন না।

৫. “দেখুন অমুক দেশে, তমুক দেশে বিধর্মীরা কিভাবে হত্যা করছে মুসলমানদের” এই গুলি উদ্দেশ্যমূলক ভাবে মুসলমানদের মাঝে উত্তেজনা ছড়ানোর জন্য প্রচার করা হয়। বেশির ভাগই মিথ্যা এবং সিনেমা স্ক্রিপ্ট তবে সত্যও আছে। যাচাই না করে আপনি Like, Comment, Share করে মিথ্যা ছড়াবেন না।

৬. “একটি ছোট্ট বাচ্চা ছেলে বা মেয়ে পাওয়া গেছে সে কথা বলতে পারে না” এডমিট কার্ড, সার্টিফিকেট বা পাসপোর্ট পাওয়া গেছে”, মালিক কে খুঁজে পেতে শেয়ার করে জানিয়ে দিন। এইগুলি মিথ্যা টিউন, সস্তায় লাইক শেয়ার পাওয়ার জন্য করা হয়। আপনি ফাঁদে পা দেবেন না।

৭. “মাত্র ৫মিনিটেই আয় করুন ৫০০০টাকা” অথবা “ঘরে বসেই আয় করুন লাখ লাখ টাকা” এগুলি মিথ্যা প্রলোভন এবং হ্যকারদের কাজ। এধরনের টিউনের লিংকে প্রবেশ করে প্রতারিত হবেন না বা শেয়ার করে অন্যদেরকে প্রতারনার ফাঁদে ফেলবেন না।

৮. সহিংসতা ছড়াতে পারে এমন টিউন না বুঝে ফেসবুকে লিখলে অথবা লাইক টিউমেন্ট শেয়ার করলে আইনের ফাঁদে পরতে পারেন। তাই এমন কিছু করবেন না, সচেতন হোন।

৯. ইউনিভার্সিটি ল্যাবে, সাইবার ক্যাফেতে ফেসবুক ইমেইল ব্যবহারে সচেতন হোন। আপনার ইউজারনেইম পাসওয়ার্ড ভূলক্রমে সেইভ হয়ে যেতে পারে। যা অন্য কেউ পেয়ে যাবে। সাইবার ক্যাফে বা বন্ধুদের কম্পিউটারে কী-লগার থাকতে পারে যা গোপনে আপনার ইউজার পাসওয়ার্ড সংরক্ষন করে রাখবে।

১০. আপনার ফেসবুকে ওয়ালে অন্যকেউ অনাকাঙ্খিত টিউন শেয়ার করতে পারে, ট্যাগ করতে পারে, আপনাকে অশ্লীল গ্রুপে এড করতে পারে। সেটিংস ঠিক করুন, সচেতন হোন। মেয়েদের ফেসবুক আইডি খুব বেশি হ্যাক হয়। আর হ্যাক হওয়া ফেসবুক আইডি থেকে পর্নোগ্রাফি ছড়ানো হয়। তাই এমন পরিস্থিতিতে পরিবার, আইটি বিষয়ে অভিজ্ঞ ব্যক্তি, প্রয়োজনে আইনের আশ্রয় নিন।

আপনার ফেসবুকে নিরাপত্তা: ফেসবুকে ব্যবহৃত মোবাইল নাম্বার, ইমেইল আইডি Only me করে রাখুন যেন অন্যকেউ দেখতে না পারে। ইমেইল ও ফেসবুকে মোবাইল (টু স্টেপ) অথেন্টিকেশন চালু রাখুন। এতে করে কেউ আপনার ইউজার পাসওয়ার্ড ব্যবহার করে লগইন করতে চাইলে আপনার মোবাইলে ইনফরমেশন বা একটি পিনকোড পাঠাবে এটি ছাড়া লগইন করা যাবে না। কাউকে ইমেইল পাসওয়ার্ড, ফেসবুক পাসওয়ার্ড কখনোই শেয়ার করবেন না।

আপনার এই সামান্য সচেতনতা আপনাকে যেমন অনেক ধরনে বিরম্বনা থেকে রেহাই পেতে সাহায্য কররে তেমনি ইন্টারনেটের এই দ্রুত প্রসারমান সময়ে আপনার ছোট ভাই বোন, বন্ধুদেরকে ভূল, মিথ্যা, অপপ্রচার থেকে সচেতন করবে, সেই সাথে তাদেরকে অনাকাঙ্খিত পরিস্থিতি থেকে রক্ষা করবে।

লেখাটি ভাল লাগলে বা আপনার মতামত জানাতে টিউমেন্ট করুন। এই তথ্যগুলি জানা সবার জন্য প্রয়োজন মনে করলে শেয়ার করুন। Facebook account hacking video tutoreal

About Admin

Check Also

hqdefault

ইউটিউব থেকে আয় করার ৫ টি উপায়

ইউটিউব থেকে আয় করার ৫ টি উপায় বেশিরভাগ মানুষ ইউটিউব ব্যাবহার করে সম্পূর্ণ মজার খোঁড়াক …

Leave a Reply